বৃষ্টির দিন রচনা – Rainy Day Essay in Bengali

0
54

বৃষ্টির দিন রচনা – Rainy Day Essay in Bengali : এখানে আপনার জন্য প্রবন্ধটি দেওয়া হল, বৃষ্টির দিনের রচনাটি 1, 2, 3, 4, 5, 6, 7, 8, 9, 10 শ্রেণির শিশুদের জন্য দেওয়া হয়েছে। এখানে আমরা 100, 200, 250, 300, 400 এবং 500 শব্দে প্রবন্ধ দিয়েছি প্রবল বৃষ্টির দিন অর্থাৎ যেদিন প্রবল বৃষ্টি হয়েছিল।

বৃষ্টির দিন রচনা – Rainy Day Essay in Bengali

Rainy Day Essay in Bengali

হ্যালো বন্ধুরা এখানে ছোট ক্লাসের বাচ্চাদের জন্য বৃষ্টির দিন নিয়ে একটি ছোট রচনা।

গ্রীষ্মের তপ্ত দিনের পর বৃষ্টির দিনকে স্বাগত জানানো হয়, গ্রীষ্মে সূর্যের রোদের তাপ অসহনীয় হয়ে ওঠে। পুকুরগুলো শুকিয়ে যায়। তৃষ্ণার্ত হয়ে পড়ে পাখি ও পশুপাখি। গ্রীষ্মকালে সকল পুরুষ, মহিলা ও শিশুরা নিজেদের অস্বস্তি বোধ করে।

বৃষ্টির আগমনে সকলের জীবন আনন্দময় হয়ে ওঠে, পুকুরে ব্যাঙ তুর তুর শব্দ করে। মহিষরা জলাশয়ে স্নান উপভোগ করে।

মানুষ রেইনকোট পরে বের হয় এবং বৃষ্টির সময় ছাতা ব্যবহার করে। বর্ষার প্রথম দিন থেকেই শিশুরা বৃষ্টির মধ্যে খেলা শুরু করে।

একটি বৃষ্টির দিনে, একটি মনোরম ঠান্ডা হাওয়া আছে. চারিদিকে ছড়িয়ে থাকা ময়লা পরিষ্কার হয়ে যায়। বৃষ্টির কারণে আবহাওয়া হয়ে ওঠে মনোরম।

বৃষ্টির পর কৃষকরা নতুন জীবন পায়। তারা তাদের ক্ষেত চাষ শুরু করে। মৌর ও অন্যান্য পাখিরা বর্ষাকালে বিভিন্ন আঠখেলি করে।

বৃষ্টির দিন রচনা

ভূমিকা

আমাদের রাজস্থান একটি শুষ্ক মরুভূমি অঞ্চল। এখানে বর্ষার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। অসময়ে বৃষ্টি হওয়ায় এখানকার প্রকৃতি হয়ে ওঠে প্রফুল্ল ও সবুজ। তবে এখানে সাধারণত বৃষ্টিপাতের পরিস্থিতি থাকে এবং কখনও কখনও খুব কমই বৃষ্টি হয়।

গ্রামের পরিবেশ

আমাদের গ্রামটি পূর্ব রাজস্থানের বনাস নদীর কাছে অবস্থিত। মাঝে মাঝে বর্ষাকালে নদী প্লাবিত হয়, তাই নিচু এলাকার মানুষ নিরাপদ স্থানে চলে যায়।

কিছু ক্ষতিও হয়েছে, তবে বন্যার পানি কমলেই গ্রামে শান্তি বিরাজ করছে। মানুষ উর্বর জমির পূর্ণ সদ্ব্যবহার করে। তাই নদীর পাড় সুন্দর।

মুষলধারে বৃষ্টি

দুই বছর আগে বর্ষা শুরু হয়েছিল। সারাদিনের কাজকর্মে ক্লান্ত মানুষ রাতে ঘরে ঘরে ঘুমিয়ে নিচ্ছেন।

সেই সাথে মেঘের গর্জন শুরু হয় এবং দ্রুত বৃষ্টি শুরু হয়। সকাল পর্যন্ত এ অবস্থা ছিল। এতে বনস নদীর পানি কিছুটা বাড়লেও এখন পর্যন্ত কোনো ক্ষতি হয়নি।

কিন্তু দিনের প্রথমার্ধ পার হতে না হতেই শুরু হয় প্রবল বৃষ্টি। আর এক ঘণ্টার প্রবল বর্ষণে চারদিকে পানির প্রবাহ বাড়তে থাকে। যখন মেঘ অবিরাম বর্ষণ করতে থাকে, তখন লোকেরা কিছুটা আতঙ্কিত হয়ে ইন্দ্রদেবের কাছে প্রার্থনা করতে থাকে।

বৃষ্টি দ্বারা বিধ্বস্ত

মুষলধারে বৃষ্টি চলতে থাকে। এতে গ্রামের চারপাশে পানি ভর্তি হতে থাকে। বনস নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে গ্রামের নিম্নাঞ্চলে ধ্বংসযজ্ঞ শুরু করেছে।

এতে কয়েকটি ঘরবাড়ি ও কচুর ঝুপড়ি ভেসে গেছে। মানুষ উঁচু জায়গায় ও বাড়ির ছাদে আশ্রয় নিতে শুরু করেছে।

কেউ কেউ পঞ্চায়েত ভবন ও স্কুল ভবনে গিয়েছিলেন। সবাই নিজেকে নিয়ে চিন্তিত হতে লাগল। গ্রামে হৈচৈ পড়ে যায়। প্রবল বৃষ্টিতে ভেসে গেছে কিছু গবাদিপশুও। সারাদিন থেমে থেমে বৃষ্টি শুরু হয়।

সন্ধ্যায় বৃষ্টি থেমে নদীর পানি কমতে শুরু করলে দেখা যায়, প্রবল বর্ষণের শিকার হয়েছেন গ্রামের তিন বৃদ্ধ।

অনেক বাড়ির শস্য ভিজে গেছে এবং অনেক ক্ষতি হয়েছে। এতে গ্রামে শোকের ছায়া নেমে আসে এবং মানুষ শান্তির জন্য ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করতে থাকে।

উপসংহার

প্রবল বর্ষণে গ্রামে যে ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা দেখে সবারই মন খারাপ। ত্রাণ কাজে নিয়োজিত পঞ্চায়েত সমিতির সদস্যরা। প্রবল বৃষ্টি থেমে যাওয়ার পর মানুষ তাদের ক্ষতি নিয়ে উদ্বিগ্ন হতে থাকে।

সেদিনের প্রবল বৃষ্টির ভয়ঙ্কর দৃশ্য মনে পড়লে সারা শরীর কাঁপতে থাকে। যদি বৃষ্টি হয়, কিন্তু কোন ধ্বংসাত্মক বৃষ্টি না হয়, এই আমরা প্রভুর কাছে প্রার্থনা করি।

উপসংহার

আশা করি বৃষ্টির দিন রচনা – Rainy Day Essay in Bengali এই নিবন্ধটি আপনার পছন্দ হয়েছে, যদি আপনি এই তথ্যগুলি পছন্দ করেন তবে আপনার বন্ধুদের সাথেও শেয়ার করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here